‘ব্লু হোয়েল’ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই, তবে সাবধানতা জরুরি

নাহিদ ইসলাম, কেশবপুর নিউজ  ||

নীল তিমি বা সিনিয় কিত বা ব্লু হোয়েল একটি অনলাইন প্রতিযোগিতামূলক খেলার নাম, এটি “নীল তিমি প্রতিযোগিতা (ব্লু হোয়েল চ্যালেঞ্জ)” নামেও পরিচিত। নীল তিমি বা ব্লু হোয়েল একবিংশ শতকের অনলাইন গেমগুলির মধ্যে একটি হিসাবে দাবীকৃত। নাম থেকে ধারণা করা ব্লু হোয়েল একটি রুশ অনলাইন প্রতিযোগিতামূলক খেলা। সোশ্যাল গেমিং পাতার প্রশাসকের নির্দেশ মোতাবেক ৫০ (পঞ্চাশ) দিন ধরে বিভিন্ন কাজ করতে হয় এবং সর্বশেষ চ্যালেঞ্জ হিসেবে অংশগ্রহণকারীকে আত্মহত্যা করার নির্দেশ দেয়া হয়।

বিশ্বে এখনও পর্যন্ত ব্লু হোয়েল খেলতে গিয়ে ১৩০ জনেরও বেশি কিশোর-কিশোরীর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবী করা হয়। ব্লু হোয়েল গেমের সর্বশেষ ধাপ হিসেবে আত্মহত্যায় প্ররোচিত করার কারণে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বিশেষভাবে প্রচারিত হয়েছে এ গেমের খবর। এ থেকেই সাধারণ মানুষের মধ্যে এক ধরনের আতঙ্ক বিরাজ করছে। অভিভাবকগণ আতঙ্কিত হচ্ছেন সন্তানের স্মার্টফোন ও ইন্টারনেট ব্যবহারের ব্যাপারে।

আতঙ্কের পালে নতুন হাওয়া যোগাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম বিশেষ করে ফেসবুকের ভুয়া বার্তার মাধ্যমে। বৃহস্পতিবার সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে একটি ভুয়া বার্তা ছড়াতে দেখা গেছে।

ওই বার্তায় বলা হচ্ছে—”১৩ অক্টোবর শুক্রবার রাত ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত এক ঘণ্টা বাংলাদেশের সব অ‍্যান্ড্রয়েড ফোনে ব্লু হোয়েল গেম ঢুকিয়ে দেওয়া হবে। যা প্রবেশের ফলে আপনার ফোনের সব ব‍্যক্তিগত তথ‍্য, ফেসবুক, টুইটার, হোয়াটসঅ‍্যাপ, আইএমওসহ সবকিছু ধ্বংস হয়ে যাবে। তাই শুক্রবার রাত ৯ থেকে ১০টা পর্যন্ত ফোন বন্ধ রাখুন। দেশের সেবায় এটি বেশি বেশি ফরোয়ার্ড করুন। জনসচেতনতায় বিটিআরসি।”

বিটিআরসির নামে ফেসবুকে ছড়ানো ওই বার্তাটি দেখে অনেকের মধ্যেই উৎকণ্ঠা দেখা যায়। বিটিআরসি সূত্র জানিয়েছে, এটি পুরোপুরি ভুয়া বার্তা । এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।

তবে আলোচিত ব্লু হোয়েল গেম নিয়ে কৌতূহলী হয়ে অনেকেই ভুয়া অ্যাপ ও কনটেন্ট অনুসন্ধান করছেন যা ব্যবহার ঝুঁকিপূর্ণ।

তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলেন, ব্লু হোয়েল গেমের নামে ভুয়া অ্যাপ্লিকেশন বা সফটওয়্যার ডাউনলোড করলে ডিভাইসের সমস্যা হতে পারে। ব্যক্তিগত তথ্য চুরি হতে পারে। ব্লু হোয়েল গেমসহ ক্ষতিকর অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড বিষয়ে সচেতন থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

ব্লু হোয়েল গেমের নামে ভুয়া অ্যাপ্লিকেশন বা সফটওয়্যার ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। কৌতূহলী হয়ে অপরিচিত লিংকে ক্লিক করবেন না। ফেসবুক বা মুঠোফোনে ব্লু হোয়েল বিষয়ক কোন সন্দেহজনক বার্তা পেলে প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ গ্রহণ করুন।

You May Also Like