বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ এখন বিশ্বপ্রামাণ্য ঐতিহ্য

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণকে ‘বিশ্ব ঐতিহাসিক প্রামাণ্য দলিল’ (ওয়ার্ল্ডস ডকুমেন্টারি হেরিটেজ) হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে ইউনেস্কো। গত সোমবার ফ্রান্সের প্যারিসে ইউনেস্কোর মহাপরিচালক ইরিনা বোকোভা এক ঘোষণায় এ কথা জানান। এ তালিকায় ঠাঁই পেয়েছে বিশ্বের আরও ৭৭টি উল্লেখযোগ্য ঘটনা। গতকাল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ইউনেস্কোর ঘোষণায় বলা হয়, ইউনেস্কো সদর দপ্তরে গত ২৪-২৭ অক্টোবর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত বৈঠকে সংস্থাটির বিশ্ব ঐতিহ্যবিষয়ক কর্মসূচির আন্তর্জাতিক উপদেষ্টা কমিটি (আইএসি) নতুন ৭৮টি বিষয়কে ঐতিহাসিক দলিলের স্বীকৃতি দিতে সুপারিশ করেছে। সংস্থাটির নিয়মানুযায়ী, ইন্টারন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি কমিটির সুপারিশে মহাপরিচালকের সম্মতি পেলেই কোনো দলিলকে ওই তালিকায় যুক্ত করে নেওয়া হয় এবং পরে তা ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়।

এদিকে ৭ মার্চের ভাষণকে বিশ্বের ঐতিহাসিক প্রামাণ্য দলিল হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ায় গতকাল রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, সমগ্র বাঙালি জাতির জন্য আজ আনন্দের দিন। আপনারা জানেন যে, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ পাকিস্তানি শোষণ ও নিপীড়নের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে স্বাধীনতা এবং মুক্তির সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়তে অনুপ্রেরণা জাগায়। সেই ভাষণ এখনো বাঙালি জাতিকে উজ্জীবিত করে।

তিনি বলেন, এ স্বীকৃতির মাধ্যমে পৃথিবীর মানুষ বঙ্গবন্ধুর অতুলনীয় ব্যক্তিত্ব এবং বাঙালি জাতির মুক্তি সংগ্রামে তার অবিসংবাদিত ভূমিকার বিষয়টি আরও বিশদভাবে জানার সুযোগ পাবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণটি সারা বিশ্বে প্রচারের জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

You May Also Like