প্রায় দেড়মাস আগে নিখোঁজ হওয়া শারমিন নাহারের সন্ধান আজও মেলেনি

আব্দুর রহিম রানা:

প্রায় দেড়মাস আগে নিজ বাড়ি থেকে নিখোঁজ হওয়া মানসিক ভারসাম্যহীন যুবতী শারমিন নাহারের আজও খোজ পাওয়া যায়নি। এদিকে এমএ পাশ করা আদরের কন্যা হারিয়ে বৃদ্ধ পিতামাতা সহ স্বজনরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে। জানা গেছে, খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলাধীন ধামালিয়া গ্রামের জমিদারবাড়ি এলাকার বাসিন্দা কেসমত আলী বিশ্বাসের মেয়ে শারমিন নাহার শরীফা (২৭) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়ার অধীনে গাজীপুর রউফিয়া কামিল মাদ্রাসা থেকে ২০১৩ সালে কামিল ( এমএ) পাশ করে। এরপর বৃদ্ধ পঙ্গুবাবা মায়ের সংসারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ভাইয়ের মৃত্যুর কারনে সংসারে চরম অভাব দেখা দেয়। ফলে শারমিন নাহার বিভিন্ন স্থানে চাকরি খুজতে থাকে কিন্তু লেখাপড়ায় অত্যন্ত ভাল ফলাফল থাকলেও শরীরে শ্বেতি বা পাহারা রোগ থাকায় কোথাও কোন চাকরি মেলেনি। এতে সে মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়ে।

একদিকে সংসারের অভাব অনটন অন্যদিকে শ্বেতি বা পাহারা রোগের কারনে চাকরি না পাওয়ার যন্ত্রনায় মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে শারমিন। পাগল হয়ে পথে পথে ঘুরে বেড়াতে থাকে সে। একপর্যায়ে তার বাবা মা তাকে ঘরে আটকিয়ে চিকিৎসা দিতে থাকেন । এরই মধ্যে গত ১৯ জানুয়ারি সকালে ঘর থেকে সকলের অজান্তে বেরিয়ে যায়। দীর্ঘ প্রায় দেড়মাস হতে চললেও আজও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। সে সবসময় হাসিমুখে থাকে এবং সবার সাথে হেসে হেসে কথা বলে বলে তার এলাকাবাসী জানিয়েছেন।

হালকা পাতলা গড়নের গোলগাল চেহারার ৫ফট ২ইঞ্চি লম্বা শারমিন নাহার নিখোঁজ হওয়ার দিন তার পরনে খয়েরি রংয়ের স্যালোয়ার, লাল ছাপা জামা ও লাল ওড়না গায়ে ছিল। এ ব্যাপারে শারমিন নাহারের মা আমেনা বেগম গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ডুমুরিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন। যার নং ১৩৯২। সন্ধানের জন্য ০১৯৩১০৩৭৪৪৮ অথবা ০১৯১৩২১২৬১১ নাম্বার মোবাইল ফোনে যোগাযোগের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। সন্ধানদাতাকে পুরস্কৃত করার ঘোষনা দিয়েছেন নিখোঁজ শারমিন নাহারের পিতামাতা।

You May Also Like