কেশবপুরে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর ওপর হামলা ॥ আহত ৪, আটক ৩

কেশবপুর নিউজ ডেস্ক ॥

কেশবপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীর ওপর যুবদলের হামলায় ৪ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী গুরুতর আহত হয়ে কেশবপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাৎক্ষণিক পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত ৩ জনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা শাহীন বাদী হয়ে কেশবপুর থানায় মামলা করেছে। যার নং- ২৭ তাং- ২২/৫/১৮।

জানা গেছে, সোমবার রাতে উপজেলার বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদের আহবায়ক ও পৌর ছাত্রলীগ নেতা সবুজ হোসেন নিরব শহরের বায়সা মোড়ে তার রাজনৈতিক অফিসে ৫/৬ জন দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে মিটিং করছিলেন।  এ সময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে যুবদলের নেতা ইব্রাহিম হোসেনের নেতৃত্বে ১৫/১৬ জন নেতাকর্মী লাঠিসোটা নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। হামলায় পৌরসভার কাউন্সিলর জামাল উদ্দীন সরদারের ছেলে ছাত্রলীগ নেতা শাহীন, সোহেল, শামীম ও বিল্লাল হোসেন গুরুতর আহত হয়। এলাকাবাসি তাদের উদ্ধার করে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

ওই রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে সাবদিয়া গ্রামের ইয়াছিন বিশ্বাসের ছেলে যুবদল নেতা ইব্রাহিম হোসেন, আলতাপোল গ্রামের আলি বিশ্বাসের ছেলে দেলোয়ার হোসেন, গোপাল বিশ্বাসের ছেলে নান্টু বিশ্বাসকে আটক করে। এ ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা শাহীন বাদি হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ১৫/২০ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছে।

এ ব্যাপারে আলতাপোল ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফজাল হোসেন বাবু বলেন, গত এক সপ্তাহ আগে শাহীনের নেতৃত্বে যুবদল কর্মী নান্টুর ওপর হামলা চালানো হয়। এসব দ্বন্দ্বের জের ধরে ওই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ  সৈয়দ আব্দুল্লা বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা হওয়া পর থেকে অন্য আসামীরা পলাতক রয়েছে। গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

You May Also Like