কেশবপুরের ভালুকঘরে গ্রামবাসীর সহযোগিতায় দিনমজুরের পৌতৃক সম্পত্তি পুনরুদ্ধার

কেশবপুর নিউজ ডেস্ক

কেশবপুরের ভালুকঘর গ্রামের এক দিনমজুর পরিবারের  পৌতৃক সম্পত্তি পুনরুদ্ধার করা হয়েছে। জমি বিক্রয় করে পরবর্তীতে ওই জমি পুনরায় দখল করে নিয়ে মামলা দিয়ে হয়রানী ও বিভিন্নভাবে হুমকির ঘটনায় এলাকাবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে ওই জমি পুনরুদ্ধার করে দিনমজুর নুর নবী গংদের নিকট বুঝিয়ে দিয়েছেন।

জানা গেছে, উপজেলার ভালুকঘর গ্রামের মৃত ফটিক মোড়লের ছেলে দেলবর হোসেন ওরফে দেলওয়ার শেখ ১৯৮০ সালে ভালুকঘর মৌজার ৩৪১ খতিয়ানের আর এস ৫৭ দাগের ১৮ শতক ও আর এস ৬০ দাগের ৩০ শতক জমি ওই গ্রামের লোকমান গাজীর নিকট থেকে ৩৮ হাজার টাকায় ক্রয় করেন। জমি বিক্রয়ের কিছুদিন পরই লোকমান গাজী অসুস্থ হয়ে পড়লে তিনি ওই জমি রেজিষ্টি করতে না পারায় দেলবর হোসেন ওরফে দেলওয়ারের নামে ওসিয়াত নামা করে দেন। এর কিছুদিন পরই তিনি মারা যান। ওসিয়াতনামার সূত্রে ওই জমি দেলবর হোসেন ওরফে দেলওয়ার শেখের নামে রেকর্ড ও নামপত্তন হয়। সেই থেকে অদ্যবধি দেলবর হোসেন ওরফে দেলোয়ার হোসেন ওই জমির ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করে আসছেন। ওই জমিতে দেলবার হোসেন ওরফে দেলওয়ার শেখ ও তার  ওয়ারেশগণ প্রায় ২০ বছর ধরে ভোগ দখলে রেখে এর ২০ শতক জমিতে কলা, ১০ শতক জমিতে মেহগনী, ০৮ শতক জমিতে বাঁশঝাড়, ১০ শতক জমিতে হলুদসহ নানাবিধ ফলদ বৃক্ষ রোপণ করে ভোগ দখল করে আসছেন।

পরবর্তীতে বিএনপি-জামাত জোট ক্ষমতায় আসলে লোকমান গাজীর ছেলে জামাত নেতা রাজ্জাক গাজী, সাজ্জাদ গাজী, সাখাওয়াত গাজী ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে ওই জমি জোরপূর্বকভাবে দখল করে নেয়। ওই সময় তারা উল্লেখিত জমিতে রোপনকৃত প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার বিভিন্ন প্রজাতির গাছ জোরপূর্বক কেটে বিক্রয় করে দেয়। এ ঘটনায় দেলবার হোসেন ওরফে দেলওয়ার শেখ যশোর আদালতে একটি মামলা করেন । যার নং-৯৯/০১। এ মামলার রায় তাদের পক্ষে যাওয়ার পরও ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে লোকমান গাজীর ছেলেরা দীর্ঘদিন ওই জমি দখল করে রাখেন ।

চলতি বছরের ২৭ মে দেলবার হোসেন ওরফে দেলওয়ার ৪৮ শতক জমি সমান ভাগ করে তার চার ছেলের নামে হেবার ঘোষণাপত্রের মাধ্যমে দলিল করে দেন। এ সময় ওই জমি দখলে নিতে গেলে লোকমান গাজীর ছেলে রাজ্জাক গাজী, সাজ্জাদ গাজী, ও সাখাওয়াত গাজীসহ অজ্ঞাতনামা একদল সন্ত্রাসী নুরনবী শেখ সহ তার ভাইদের  উপর হামলা চালিয়ে মারপিট করে আহত করে। এ ঘটনায় নুর নবী শেখ কেশবপুর থানায় উল্লেখিত হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি করেন। যার নং- ৫৭৮। তাং-১৫-০৭-১৮।

এ বিষয়ে এলাকাবাসীরা একাধিকবার সালিসের মাধ্যমে মিমাংসার চেষ্টা করলেও রাজ্জাক গাজী গংরা ওই জমি দখলে রাখেন। রোববার এলাকাবাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে ওই জমি পুনরুদ্ধার করে দেলোয়ার হোসেন ওরফে দেলওয়ার শেখের ছেলে নূর নবী শেখ, ইকবাল হোসেন, হুমায়ুন কবীর ও সালমানের নিকট বুঝিয়ে দিয়েছেন।

ভালুকঘর গ্রামের এরশাদ গাজী এ বিষয়ে বলেন, লোকমান গাজী ও তার ছেলেদের স্বাক্ষরে বায়নাপত্রের মাধ্যমে ওই জমি  দেলবার হোসেন ওরফে দেলওয়ারের নামে লিখে দেয় । সেই থেকে  ওই জমি তারা ভোগ দখল করে আসছেন। পরবর্তীতের বিএনপি-জামাত ক্ষমতায় আসলে লোকমান গাজীর ছেলে জামাত নেতা রাজ্জাক গাজী ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে ওই জমি দখল করে নেয়। এ নিয়ে একাধিকবার গ্রামে সালিস হয়েছে কিন্তু তারা এলাকার কোন সালিস বিচার মানেনি। যে কারনে আমরা এলাকাবাসীরা এক হয়ে ওই জমি পুনরুদ্ধার করে দেলবার হোসেন ওরফে দেলওয়ারের ওয়ারেশগনকে বুঝিয়ে দিয়েছি।

You May Also Like