১৫ অক্টোবর থেকে শারদীয় দুর্গোৎসব, শিল্পীরা ব্যস্ত প্রতিমা সজ্জায়, ভক্তরা কেনাকাটায়

কেশবপুর নিউজ ডেস্ক ||

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা। আসছে ১৫ অক্টোবর মহালয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হবে দেবী আগমনের আনন্দ। যশোর জেলায় এবার ৬৭০টি মন্ডপে পুরোদমে চলছে শারদীয় দুর্গোৎসবের প্রস্তুতি। এখন মৃৎশিল্পীরা ব্যস্ত প্রতিমার গায়ে রঙের আঁচড় এঁকে দিতে। ব্যস্ত ভক্তরাও। ঘর বাড়ি পরিস্কারের পাশাপাশি চলছে নতুন কাপড় কেনাকাটা। যশোর জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জোগেষ দত্ত জানান, এবার জেলায় ৬৭০টি পূজা মন্ডপ ও মন্দিরে পূজা অনুষ্ঠিত হবে। যার মধ্যে সদর উপজেলায় ১৪৫টি ও যশোর শহরে ৪১টি।

সফলভাবে পূজা উদ্যাপন করতে পরিষদের কাজ প্রায় ৭০ শতাংশ শেষ। আমরা খুব ভালোভাবে এগিয়ে যাচ্ছি। আমাদের আশা অনুযায়ী প্রশাসনের কাছ থেকে ভাল সাড়া পেয়েছি। পূজাকে সামনে রেখে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। তারা উৎসবকে রাঙাতে নিচ্ছেন নানা প্রস্তুতি।

যশোর এমএম কলেজের ছাত্র ঝিনাইদহের কোটচাদপুরের বাসিন্দা সুভাষ বিশ্বাস জানান, পূজা উপলক্ষে নতুন পোশাক কিনেছি। কয়েক দিন পর বাসায় যাবো। পরিবারের সকলের সাথে পূজার আনন্দে মাতবো। বেশ ভাল লাগছে।

যশোরের ধর্মতলা এলাকার আনন্দ কুমার মিত্র বলেন, মা-বাবাসহ পরিবারের সকলের জন্য নতুন পোশাক কিনেছি। সবাই একত্রে পরবো। বিভিন্ন মন্ডপে গিয়ে পূজা দেখবো; ভাবতেই যেন আনন্দে মন ভরে যাচ্ছে।

একই এলাকার জয় কান্ত বলেন, আমার পরিবার ঢাকায় থাকে। কাজের জন্য আমাকে যশোর থাকতে হয়। পূজার সকল আয়োজন শেষ। এখন অফিস ছুটি হলে পরিবারের কাছে যেতে চাই। মনে হচ্ছে সময় যেন পার হচ্ছে না। এখন ছুটির অপেক্ষা করছি। ছুটি পেলেই বাসায় গিয়ে সকলের সাথে পূজা উপভোগ করবো এবং আনন্দ করবো।

You May Also Like