কেশবপুরে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো বাল্য বিয়ে

কেশবপুর নিউজ ডেস্ক ||

কেশবপুর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা শেফার হস্তক্ষেপে একটি বাল্যবিবাহ বন্ধ হয়েছে।

জানাগেছে, রোববার উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের হাফিজুর সরদারের মেয়ে (১৪) এর সাথে মণিরামপুরের কবির হোসেনের ছেলে সুমন হোসেন (২০) এর বিবাহের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছিল। মির্জাপুর দাখিল মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেণীর ওই ছাত্রীর বাল্যবিয়ের খবর পেয়ে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা শেফা মির্জাপুর গ্রামে ঐ বাড়িতে উপস্থিত হয়ে বাল্য বিয়ে বন্ধ করেন।

এ সময় তিনি মেয়েকে বাল্যবিবাহ দেবেন না এই মর্মে মেয়ের মা আমিনা বেগমের নিকট থেকে একাটি মুচেলকা নেন। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা শেফা বলেন, খবর পেয়ে ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে বাল্য বিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

You May Also Like