কেশবপুরে পল্লী বিদ্যুতের আলোর ফেরিওয়ালা

কেশবপুর নিউজ ডেস্ক ||

বিদ্যুৎ সংযোগ পেতে গ্রাহক হয়রানি ও দালালমুক্তভাবে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিতে কাজ করছে কেশবপুর পল্লী বিদ্যুত অফিস। এর অংশ হিসেবে উপজেলার বিভিন্ন অঞ্চলে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানের জন্য ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ নামে এক কর্মসূচি রোববার থেকে শুরু করা হয়েছে। যশোর পল্লী বিদ্যুত সমিতি-২ এর কেশবপুর জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার আবু আনাস মো. নাসেরের নেতৃত্বে একটি টিম ইঞ্জিনচালিত মোটর ভ্যানে করে মিটার-তারসহ যাবতীয় বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম নিয়ে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের গ্রামে গ্রামে সাধারণ মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছান। প্রতিটি গ্রাহক কোনপ্রকার ঘুষ ছাড়াই পাচ্ছেন নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ। সকল কাগজ পত্র ঠিক থাকলেই ৫ মিনিটের মধ্যে দেয়া হচ্ছে এ সংযোগ। হাতের নাগালে বিদ্যুতের সংযোগ পেয়ে সাধারণ গ্রাহকরা অনেক খুশি। প্রথমদিনে ৭ গ্রাহককে  নতুন বিদ্যুৎসংযোগ প্রদান করা হয়। উপজেলার প্রতিটি বাড়িতে বিদ্যুত সংযোগ না পৌছানো পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে বলে জানা গেছে।

কেশবপুর জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার আবু আনাস মো. নাসের কেশবপুর নিউজকে জানান, বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে গ্রাহকরা নানাভাবে হয়রানির শিকার হন। অফিসে দিনের পর দিন ঘুরতে হয়। দালালদের খপ্পরে পরে বাড়তি অর্থ ব্যয় হয় তাদের। গ্রাহকদের দুর্ভোগের কথা ভেবে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। বাড়ি বাড়ি গিয়ে কীভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া যায়, সেই পরিকল্পনা থেকেই বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি নিয়ে গ্রামে গ্রামে বাড়ি বাড়ি যাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, এই কর্মসূচির নাম দেয়া হয়েছে আলোর ফেরিওয়ালা। গ্রামের  বাড়িতে সংযোগ দিতে নিচ্ছেন অফিস নির্ধারিত জামানতে চারশত টাকা, আবেদন ফি ভ্যাটসহ ১ শত ১৫ টাকা ও সমিতির সদস্য চাঁদা পঞ্চাশ টাকা। সর্বোমোট ৫ শত ৬৫ টাকায় মিটার সহ বিদ্যুৎ সংযোগ পেয়ে যাচ্ছেন।  বিদ্যুৎ গ্রাহকরা বাড়িতে বসেই টাকা দিচ্ছেন, রশিদ নিচ্ছেন, সাথে সাথে মিলছে সংযোগ।

You May Also Like