ঔষধ ব্যবসায়ীকে গ্রেফতারের দাবিতে কেশবপুরে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

কেশবপুর নিউজ ডেস্ক ||

 বুধবার সকালে কেশবপুর শহরের পাল মেডিকেলের মালিক শংকর কুমার পালকে গ্রেফতারের দাবিতে কেশবপুর পাইলট বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা এক মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে। কয়েকদিন আগে বিদ্যালয়ের পাশ দিয়ে সরকারি ড্রেন নির্মাণকে কেন্দ্র করে শিক্ষকদের সাথে শংকর কুমার পালের কথা কাটাকাটির ঘটনায় শিক্ষকদের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়। পুলিশ কোন ভূমিকা না নেয়ায় এই মানব বন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে।

কেশবপুর পাইলট বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান জানান, আমাদের বিদ্যালয়ের জমির উপর দিয়ে ড্রেন নির্মাণ করায় গত ২৭ এপ্রিল আমরা ঠিকাদারের সাথে কথা বলি। এক পর্যায়ে ঠিকাদারের সাথে আমাদের মিমাংসা হয়ে গেলে আমরা সেখান থেকে চলে আসার সময় শংকর পাল বিনা কারনে আমাদের উপর চড়াও হয়। তিনি আমাদের অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। ওই দিন আমরা কমিটির মিটিং করে থানায় লিখিত অভিযোগ করি। কিন্তু আজ পর্যন্ত পুলিশ কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় আমরা মানব বন্ধন করেছি। প্রশাসন যদি কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করে তাহলে আগামীতে কমিটির সাথে আলোচনা করে আমরা কঠিন আনন্দোলন করতে বাধ্য হবো।

পাল মেডিকেলের মালিক শংকর কুমার পাল জানান, প্রায় ১৫/২০ দিন আগে বিদ্যালয়ের পাশ দিয়ে ও আমার ফার্মেসীর সামনে সড়কের পাশ দিয়ে ড্রেন নির্মাণ কাজে শিক্ষকরা বাধা দিতে আসলে প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নানের সাথে আমার কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনায় তারা ২৭ এপ্রিল থানায় আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে এবং আজ মানব বন্ধন করেছে।

কেশবপুর থানার ওসি মোঃ শাহিন জানান, সড়কের পাশে ড্রেন নির্মাণকে কেন্দ্র করে তাদের ভেতর কথা কাটাকাটি হয়। এখানে আমাদের করার কিছু নেই। তাদের মধ্যে ব্যক্তিগত রেষারেষির কারনে শিক্ষকরা ছাত্রীদের নিয়ে মানববন্ধন করেছে। অনুমতি ছাড়া মানববন্ধন করায় পুলিশ পাঠিয়ে তাদের তুলে দেয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানূর রহমান জানান, বিষয়টি শিক্ষকরা আমাকে জানিয়েছেন। শিক্ষকদের সাথে এমন আচরণ খুবই দুঃখজনক। উভয় পক্ষকে নিয়ে বসা হবে। ভবিষ্যতে যাতে শিক্ষকদের নিয়ে এমন কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করতে না পারে তার জন্য কঠিন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

You May Also Like