যশোরের চৌগাছায় দলীয় ক্যাডার বাহিনীর হাতে আ’লীগ কর্মী খুন

আব্দুর রহিম রানা, যশোর ||

যশোরের চৌগাছায় পুকুর ইজারা নিয়ে বিরোধে মমিনুর রহমান (৫০) নামে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে আপন খালাতো ভাই। শুক্রবার সকালে লস্কারপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মমিন একই গ্রামের শামসুদ্দিন ওরফে ঈসমাইলের ছেলে। তবে এই হত্যাকান্ড রাজনৈতিক বলে মনে করছেন স্থানীয় অনেকে।

নিহতের স্ত্রী শেফালী বেগম জানান, মমিনুর সকালে বাড়ির পাশের পুকুরে নেট দিচ্ছিলেন । এ সময় একই গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে ইঊনূছ আলী, আলম ও মশিয়ারের নেতৃত্বে আলমের ছেলে তুষার, মশিয়ারের ছেলে সুমন, আলমের শ্যালক আবু বক্করের ছেলে নান্নু, ইঊনূছ-আলমদের ভাগ্নে চুড়ামনকাঠি গ্রামের রাসেল দেশীয় অস্ত্র রাম-দা ও গাছি-দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ফেলে রেখে যায়।

চৌগাছা থানার ওসি রিফাত খান রাজীব বলেন, গ্রামের একটি পুকুরের মালিক দুই ব্যক্তি। এদের এক ভাইয়ের কাছ থেকে পুকুর ইজারা নেন ইউনূস ও তার অন্য ভাইয়েরা। এরই মধ্যে পুকুরের অংশিদার আরেক ভাইয়ের কাছ থেকে পুকুরের ইজারা নেন মমিনুর রহমান। সকালে সেই পুকুরে খুঁটিপুতে নেট জাল দিচ্ছিলেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মমিনুর রহমানকে কুপিয়ে হত্যা করেছে তার আপন খালাতো ভাই ইউনূস আলী, আলম ও মশিয়ার রহমান। তাদেরকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

গ্রামের অনেকেই বলেছেন, নিহত মমিনুর রহমান সদ্য হয়ে যাওয়া উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনিত ড. মোস্তানিছুর রহমানের নৌকার কর্মী হয়ে কাজ করেছিলেন। হত্যাকারীরা বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এস এম হাবিবুর রহমানের আনারস প্রতিকের ভোট
কর্মী। নির্বাচন কেন্দ্রিক পূর্ব রাগের জের ধরেই এই হত্যাকান্ড।

পুকুর ইজারা বিরোধকে প্রকাশ্যে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে মাত্র-এমন মন্তব্য অনেকের। তবে এ বিষয়ে কোন পক্ষের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

You May Also Like